সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৫৮ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

২৪ বছর ছদ্মবেশে, অবশেষে ধরা খুনের আসামি সোহরাব

নিজস্ব প্রতিবেদক: সোহরাব হোসেন (৪৫)। ২১ বছর বয়সে মাছের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে একজনকে হত্যা করেন। হত্যাকাণ্ডের পর গ্রেফতার এড়াতে রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে নাম-পরিচয় ও পেশা পরিবর্তন করে ছদ্মবেশ ধরেছিলেন দীর্ঘ ২৪ বছর। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকার আশুলিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-২।

র‌্যাব জানায়, সোহরাব হোসেন প্রথমে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে চার বছর, মিরপুরে সাত বছর, তেজগাঁও এলাকায় তিন বছর এবং সাভারের জিরানীতে দীর্ঘ ১০ বছর আত্মগোপনে ছিলেন।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে র‍্যাব-২ কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান অধিনায়ক (সিও) অতিরিক্ত ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন খান।

তিনি জানান, ১৯৯৮ সালের জুন মাসে যশোরের কোতয়ালি থানা এলাকায় মাছের ব্যবসাকে কেন্দ্র করে ভুক্তভোগী শুক্কুর আলীকে নৃশংসভাবে হত্যা করেন আসামি সোহরাব হোসেন ও তার সহযোগী আশরাফ, রেজাউল ইসলাম, তরিকুল ইসলাম ও খোকন ঢালী।

ঘটনার পর ভুক্তভোগীর পরিবার বাদী হয়ে যশোরের কোতয়ালি থানায় পাঁচজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করে। আসামিদের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত ২০০২ সালে ১ নম্বর আসামি সোহরাব হোসেন, ২ নম্বর আসামি আশরাফ, ৫ নম্বর আসামি খোকন ঢালীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং দুজনকে খালাস দেন। এদের মধ্যে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ১ নম্বর আসামি সোহরাব হোসেন দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন।

র‍্যাব-২ এর অধিনায়ক আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার আসামি জানিয়েছে, গ্রেফতার এড়ানোর জন্য প্রথমে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে চার বছর, মিরপুরে সাত বছর, তেজগাঁওয়ে তিন বছর এবং সাভারের জিরানীতে দীর্ঘ ১০ বছরসহ দীর্ঘ ২৪ বছর বিভিন্ন পেশা ও বিভিন্ন নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে ছদ্মবেশ ধারণ করে আত্মগোপনে ছিলেন।

গ্রেফতার আসামি সোহরাব হোসেন হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তার সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করেছে৷ তাকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান র‍্যাবের এই কর্মকর্তা।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com
Web Site Designed, Developed & Hosted By ALL IT BD 01722461335