রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।
সংবাদ শিরোনামঃ
প্রধানমন্ত্রীর জনসভা: রাজশাহীতে চলবে বিশেষ ৭ ট্রেন বগুড়ার একটি সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ৪২ বগুড়া-০৭ এর সংসদ সদস্য মোঃ রেজাউল করিম বাবলু রুপসীপল্লী টাওয়ার অল্প টাকায় সাধ্যের মধ্যে মানসম্মত ফ্লাট দিতে সক্ষম প্রধানমন্ত্রীকে বরণে রাজশাহী নগরীজুড়ে বর্ণিল সাজ গভীর রাতে হিরো আলমের জন্য বগুড়ায় ভোট চাইলেন চিত্রনায়িকা মুনমুন পদযাত্রা দিয়ে বিএনপির নতুন আন্দোলন শুরু: ফখরুল বিএনপির পদযাত্রা নয় মরণযাত্রা শুরু হয়ে গেছে: কাদের আফগানিস্তানফেরত ফখরুল হাল ধরেন হুজির, ছিল বড় হামলার পরিকল্পনা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ‘সেকেন্ড টাইম’ ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে শঙ্কায় শিক্ষার্থীরা দিন যায় বৈঠক হয়, স্থানান্তর হয় না কারওয়ান বাজার

বিএসএফের গুলিতে আবারও প্রাণ গেল দুই বাংলাদেশির

জিটিবি নিউজ ডেস্ক : লালমনিরহাট সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাতে এই ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে গত ৫০ দিনে জেলার বিভিন্ন সীমান্তে বিএসএফের হাতে ছয় বাংলাদেশির মৃত্যু হলো। বিজিবি ও স্থানীয়রা জানায়, গতকাল লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার দোলাপাড়া সীমান্তে আবার বিএসএফের গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে। এতে উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব ফকিরপাড়া গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে নাজির হোসেন মংলু ও বড়খাতা ইউনিয়নের দোলাপাড়া গ্রামের হাফিজার রহমানের ছেলে সাদিক হোসেন নিহত হন। এ সময় গুলিবিদ্ধ হন আব্দুল গণি ও সাজু নামের আরো দুজন। তাঁরা রংপুরে গোপনে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে। নিহতের পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে বাংলাদেশিদের একটি দল দোলাপাড়া সীমান্তে যায় ভারতীয়দের পাঠানো গরু আনতে। কাঁটাতারের বেড়ার ফাঁক দিয়ে গরু নেওয়ার সময় বাংলাদেশিদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে বিএসএফ। ঘটনাস্থলেই মারা যান নাজির হোসেন ও সাদিক হোসেন। আব্দুল গণি ও সাজুর হাতে ও পায়ে গুলি লাগে। পরে অন্য বাংলাদেশিরা নিহতদের মরদেহ নিজ নিজ বাড়িতে নিয়ে যান। সাদিক হোসেনের মা সামিউন বেগম বলেন, ‘বুধবার রাতে ভাত খেয়ে আমার ছেলে কিছু না বলে বাড়ি থেকে বের হয়েছিল। আর সকালে লোকজন তার লাশ নিয়ে আসে বাড়িতে। ’ ছেলে গরু আনতে সীমান্তে যায়নি দাবি করে নাজির হোসেনের বাবা আব্দুস সামাদ বলেন, ‘বাড়ির পাশেই ভারতীয় সীমান্ত। তাই এমনিতেই হাঁটতে হাঁটতে সেখানে গিয়েছিল আমার ছেলে। ’ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হাফিজুল ইসলাম বলেন, ‘গুলির শব্দে গভীর রাতে আমার ঘুম ভাঙে। জানতে পারি, দুই বাংলাদেশি মারা গেছেন। পরে কাঁটাতারের এ পাশ থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে নিজ নিজ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। ’ ৬১ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল মীর হাসান শাহরিয়ার মাহমুদ সাংবাদিকদের জানান, কম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠকের আহবান জানিয়ে বিএসএফকে চিঠি দিয়েছে বিজিবি। খোঁজখবর নিয়ে প্রতিবাদলিপি পাঠানো হবে বলে জানান তিনি। এর আগে ১৫ ডিসেম্বর পাটগ্রামের জগতবেড় সীমান্তে শাহাদত হোসেন নামের এক বাংলাদেশি গুলিতে নিহত হন। এরও আগে ২৭ নভেম্বর হাতীবান্ধার ভুটিয়ামঙ্গল সীমান্তে সাদ্দাম হোসেন নামের আরেক বাংলাদেশি বিএসএফের নির্যাতনে প্রাণ হারান। গত ৯ নভেম্বর আদিতমারী উপজেলার লোহাখুঁচি সীমান্তে ওয়াস কুরুনী ও আয়নাল হক নামের দুই বাংলাদেশি মারা যান ভারতের সীমান্তরক্ষীদের গুলিতে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com
Web Site Designed, Developed & Hosted By ALL IT BD 01722461335