রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৭:০২ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।
সংবাদ শিরোনামঃ
গাবতলী, সোন্দাবাড়ী দারুল হাদিস রহমানিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা পরিদর্শন কালে মাদরাসার কৃতপক্ষ ফুলের শুভেচ্ছা জানান (৪২)বগুড়া -৭ আসনের এমপি জনাব মোঃ রেজাউল করিম বাবলু মোহদয় কে।সেই সাথে সোন্দাবাড়ী দারুল হাদিস রহমানিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় করেন ? নামীদামী ব্রান্ডের সাথে পাল্লা দিয়ে নুরানী চিলি সস ও টমেটো কেচাপ এখন ভোক্তাদের প্রথম পছন্দের তালিকায় উঠে এসেছে যাত্রাবাড়িতে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে ও যানজট নিরসনে কাজ করছেন ট্রাফিক পুলিশের টিআই মৃদুল পাল ও মেনন শিবগঞ্জে আশুরা উপলক্ষে শোক মজলিস ও র‍্যালী বাল্যবিয়ের হাত থেকে রেহাই পেল কিশোরী গাছ থেকে কাঁঠাল পাড়াকে কেন্দ্র করে দুই ভাইয়ের পরিবারের মাঝে সংঘর্ষ

চলন্ত বাসে ডাকাতি-ধর্ষণ: অভিযুক্তদের ধরতে কাজ করছে ডিবি

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কাজ করছে। যদিও ঘটনাটি টাঙ্গাইলের, তবে টাঙ্গাইল পুলিশের পাশাপাশি ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশও কাজ করছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর হোসনি দালান ইমামবাড়ায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, যেকোনো ডাকাতির ঘটনাকে পুলিশ অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখে। যদিও ঘটনাটি টাঙ্গাইলের, টাঙ্গাইল পুলিশের পাশাপাশি ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশও ডাকাতদের গ্রেফতারে কাজ করছে।

এ সময় বাসে প্যানিক বাটন লাগানো নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মহানগর পুলিশ প্রধান বলেন, বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের মতো ঘটনা রোধে প্যানিক বাটন বসানোর কথা থাকলেও সব বাসে এখনো তা সম্ভব হয়নি। ঢাকার কিছু কিছু বাসে প্যানিক বাটন বসানো হয়েছে। এর পেছনে যে খরচ তা বহনে বাস মালিকরা রাজি না হওয়ায় সব বাসে বসানো সম্ভব হয়নি।

তিনি আরও বলেন, ডাকাতির ক্ষেত্রে প্যানিক বাটন কাজে আসবে। কারণ ডাকাতরা যদি বাসে ওঠে তখন চালক প্যানিক বাটন চাপ দিলে খুব সহজে পুলিশের কাছে খবর চলে আসবে। তবে বাসে নারীদের শ্লীলতাহানি ও ধর্ষণের ঘটনায় অনেক সময় দেখা যায় চালক ও চালকের সহকারী জড়িত থাকেন। সেক্ষেত্রে প্যানিক বাটন কাজে আসবে না। কারণ চালক তো তখন নিজেই অপরাধী, সে তো ওই বাটন চাপবে না।

আরেক প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার জানান, যেসব এলাকায় নারী শ্রমিকরা বেশি কাজ করেন সেসব এলাকার বাসের চালক ও হেলপারের ছবিসহ জীবনবৃত্তান্ত ও বাসের নম্বর লিখে রাখতে হবে। তাহলে আপরাধীদের সহজেই শনাক্ত করা যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com