সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪০ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

শেরপুরে করতোয়া নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ করল প্রশাসন

জিটিবি নিউজ টুয়েন্টিফোর : বগুড়ার শেরপুরে করতোয়া নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

রোববার (০১ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের কালশিমাটি ও রামনগর গ্রামের মধ্যদিয়ে বহমান করতোয়া নদীর এই অবৈধ বালু মহাল থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেন। এসময় ভ্রাম্যমান আদালতের ওই নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নির্দেশে বালু উত্তোলনের কাজে ব্যবহৃত একটি ড্রেজার মেশিন, দুইটি শ্যালো মেশিন ও এক হাজার ফুট প্লাষ্টিকের পাইপ আগুনে জ¦ালিয়ে ধ্বংস করা হয়। এছাড়া বালু পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত তিনটি ট্রাক জব্দ করা হয়েছে।

তবে অভিযানের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে বালুদস্যুরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়নি বলে আদালত সূত্র জানিয়েছেন। উক্ত অভিযান পরিচালনাকালে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আরাফাত হোসেন, শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফজলুল হকসহ উপজেলা ও পুলিশ প্রশাসনের একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, প্রায় মাসখানেক ধরে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র ও দলীয় কিছু নেতাকর্মী করতোয়া নদীর উক্ত স্থানে ড্রেজার বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছিল। এতে করে নদী তীরবর্তী ফসলি জমি ও অসংখ্য বসতবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। ফলে ওইসব আবাদি জমি চাষাবাদ করে জীবিকা-নির্বাহ করে আসা স্থানীয় গরীব কৃষকরা অসহায় হয়ে পড়েন। এছাড়া বসতবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিলে উপজেলা প্রশাসনের দ্বাঁড়স্থ হন তারা। এরপরও তারা থেমে যায়নি।এমনকি কোন কিছুর তোয়াক্কা না করেই ওই চক্রটি অবৈধ বালু উত্তোলন অব্যাহত রাখেন।

এ অবস্থায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রোববার এই অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট ভুক্তভোগীরা জানান। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ বলেন, নদী থেকে অবৈধভাবে কেউ বালু উত্তোলন করতে পারবে না। তাই অবৈধ ওই বালু মহালে অভিযান চালানো হয়। একইসঙ্গে বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি এহেন কর্মকা-ে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার নেয়ার ঘোষণা দেন এই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com