রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:২৭ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

নওগাঁর মহাদেবপুরে মারপিট করে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে মিথ্যা মামলা দায়ের

আইনুল ইসলাম: নওগাঁর মহাদেবপুরে মারপিট করে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে পাল্টা প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই মামলা দায়ের করে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে গত ১১ জুলাই শনিবার সকালে উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের কুশাপুকুর গ্রামের শ্রী নিরেন চন্দ্র মন্ডল (৬৩) পিতা মৃত শ্রীকন্ঠ তার বাড়ির সীমানা প্রাচীরের উপর টিনের ছাউনি দিতে গেলে প্রতিবেশি পরিতোষ কুমার মন্ডল (৩৫), পরিমল চন্দ্র মন্ডল (৩০), নির্মল কুমার

মন্ডল (২৫), উভয়ের পিতা শ্রীমন্ত চন্দ্র মন্ডল, শ্রীমন্ত চন্দ্র মন্ডল (৬৫) পিতা মৃত হেমন্ত চন্দ্র মন্ডল, শ্রীমতি বাসন্তী রানি (৫৫) স্বামী শ্রীমন্ত চন্দ্র মন্ডল জোটবদ্ধ হয়ে নিরেন চন্দ্র মন্ডলের প্রাচীরের উপর কোন ছাউনি দিতে দিবে না বলে ঝগড়াঝাটি শুরু করে। এক পর্যায়ে পরিতোষ গং জোরপূর্বক নিরেনের বাড়িতে প্রবেশ বৃদ্ধ নিরেনকে এলোপাথারী মারপিট করতে থাকে। এ সময় তার ছেলে নয়ন চন্দ্র মন্ডল (৩৫), ভাতিজা হিরেন চন্দ্র মন্ডল তাকে বাঁচাতে আগাইয়া আসিলে তাদেরকেও বেধড়ক মারপিট করা হয়। এ মারপিটের ঘটনায় নয়ন চন্দ্র মন্ডল গুরুতর আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেন।

কিন্তু ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে বিবাদীরা অন্যগ্রাম থেকে আদিবাসীদের ভাড়া করে এনে মিথ্যা বাড়ি থেকে উচ্ছেদের অভিযোগ তুলে মানববন্ধন করিয়ে নেন। মানবনন্ধনে অংশ নেয়া এনায়েতপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের ধনেষ এর স্ত্রী সন্ধ্যা রানি জানান, বিষয়টি সম্পর্কে আমরা কিছুই জানিনা, আমাদেরকে বিভিন্ন অযুহাতে মহাদেবপুরে ডেকে নিয়ে মানববন্ধনে দাঁড় করিয়ে দেয়। আমাদেরকে কেউ বশত বাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা করেনি। মানবন্ধনে অংশ নেয়া একই গ্রামের মনু জানান, মানববন্ধন সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না এবং তিনি মানববন্ধনে অংশও নেননি। মনুর স্ত্রী শান্তি জানান, আমাদেরকে পরিতোষের ভাই নির্মল মিথ্যা কথা বলে ভুল বুঝিয়ে সেখানে নিয়ে গেছে। বিষয়টি সম্পর্কে আমরা কিছুই জানিনা।

ঘটনার সময় উপস্থিত একই গ্রামের রনজিৎ জানান, আমি সে সময় নিরেন চন্দ্র মন্ডলের ঘরের টিন বাধছিলাম, এমন সময় পরিতোষ, পরিমল, নির্মল কুমার ও তাদের বাবা শ্রীমন্ত সহ তার পরিবারের লোকজন টিন বাঁধতে দিবেনা বলে মারপিট শুরু করে। এ সময় টিন নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় দেওয়ালের সাথে ধাক্কা লেগে পরিতোষ আহত হয়।

প্রতিবেশী প্রবীণ ব্যক্তি প্রভাষ চন্দ্র জানান, শ্রী মন্ত ও তার পরিবারের লোকজন খুবই দুধর্ষ প্রকৃতির। তাদের অত্যাচারে গ্রামের সকলে অতিষ্ঠ, তাদের মারামারির সময় কেউ ছাড়াতে গেলে তাদেরকেও তারা মারপিট করে। এমনই একটি ঘটনার শিকার তিনি নিজেও একবার হয়েছিলেন।
নিরেন চন্দ্র মন্ডল জানান, আমাদের বাড়িতে এসে আমাদেরকে মারপিট করে আহত করে উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসাতে চাইছে। ঘটনার দিন রাতেই আমি নিজে বাদী হয়ে থানায় এজাহার দাখিল করলে অজ্ঞাত কারণে আমাদের মামলা গ্রহণ না করে তাদের দেয়া মিথ্যা মামলা গ্রহণ করে আমাদেরকে হয়রানি করা হচেছ।

এ বিষয়ে মহাদেবপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও তাদের প্রতিবেশী রাজু আহমেদ বলেন, নির্মল কুমারসহ তার বাবা ও ভাইয়েরা খুবই খারাপ প্রকৃতির লোক। গ্রামের কারো সাথেই তাদের ভালো সম্পর্ক নেই। তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রতিবেশীদের ফাঁসাতে চাইছে এটা ঠিক করে নি।
মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com