বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১১:৫৪ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

সাদুল্লাপুরে ২৩ শতাংশ জমির মালিকানা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ১ দিন মজুর নিহত-গ্রেফতার -৮

ধাপেরহাট (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নে বিরোধ পূর্ণ জমি দখলকে কেন্দ্র করে দু’প্েক্ষর সংঘর্ষের ঘটনায় শাহারুল খন্দকার (৪০) নামে এক দিন মজুর নিহত হয়েছেন। এ সময় নারীসহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে দু’মহিলাসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করেছেন। সাদুল্যাপুর উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের মহিপুর বাজার গ্রামে বুধবার সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শাহারুল খন্দকার সাদুল্যাপুর উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের ইদিলপুর গ্রামের বাবু খন্দকার ওরফে বাবু ফকীরের ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মহিপুর বাজার গ্রামের চেংটু মিয়ার পুত্র,দুলা মিয়ার সঙ্গে একই গ্রামের মিয়া জানের পুত্র ইসমাইল হোসেনের ২৩ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মামলা ও বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার সকালে ইসমাইল হোসেনগংরা ভাড়াটে লোকজন নিয়ে বিরোধ পূর্ণ জমি দখল করতে যান। খবর পেয়ে দুলা মিয়া তার লোকজন নিয়ে বাঁধা দেন। এসময় উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সংঘর্ষে মহিলাসহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হন। নিহত দিন মজুর শাহারুল দৈনিক কামলা হিসাবে জনৈক শিক্ষক সামাদ বি,এস,সির জমিতে কাজ করছিল। এসময় ইসমাইল হোসেনের ভাড়াটিয়া লোকজন ঐ দিন মজুরকে প্রতি পক্ষ মনে করে ভূল বসত ধারালো অস্ত্রদিয়ে এলো পাতারি ভাবে আঘাত করে। গুরুত্বর যখম অবস্থায় দিন মজুর শাহারুল খন্দকারকে এলাকা বাসীরা উদ্ধার করে প্রথমে পলাশবাড়ী হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে বেলা ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল থেকে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ জালাল উদ্দিন জানান, স্থানীয়দের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে এবং এঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসা বাদের জন্য ৮ জনকে আটক করা হয়েছে। আটক কৃতরা হলেন, ইসমাইল হোসেন (৬৫),মোজাহার আলী (৬০),জিল্লুর রহমান (৪২), ফিরোজ কবির (৪৮), হৃদয় মিয়া (২৫), হুমায়ুন কবির (২৮),মরিয়ম বেগম(৩০),কহিনুর বেগম (৪৫)। আহতরা হলেনঃ- ছালাম মিয়া (৩০), সাজু মিয়া (৫০), সেকেন্দার আলী (৪৫),নুরুন্নবী (৪২), ছালমা আক্তার (৪০)সহ আনুমানিক ১০/১২জন। নিহত শাহারুল খন্দকারের স্ত্রী বাদী হয়ে হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও তিনি জানান। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করায় বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে। #

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com