শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ০৫:১০ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

ফেসবুকে ‘বাঁচার আকুতি’র এক ঘণ্টার মধ্যেই তরুণীর মৃত্যু

জিটিবি নিউজ টুয়েন্টিফোর : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে বরিশালের শিরিন খানম আকুতি জানিয়েছিলেন ‘আপনারা আমাকে বাঁচান’। কিন্তু লাইভে আসার প্রায় এক ঘণ্টার মধ্যেই তার রহস্যজনক মৃত্যু হয়। বলা হচ্ছে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে আত্মহত্যার বিষয়টি এখনো নিশ্চিত করেনি পুলিশ।

রবিবার রাত ৯টা ৪ মিনিটে ফেসবুক লাইভে ২ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ভিডিওটি শিরিনের জীবনের শেষ ভিডিও। এদিন রাত ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

শিরিন খানম পেশায় একজন ওষুধ ব্যবসায়ী ছিলেন। বরিশাল নগরীর বান্দরোড লঞ্চঘাট সংলগ্ন শিরিন মেডিকেল হলের মালিক শিরিন খানম।

ফেসবুক লাইভে এসে শিরিন বলেন, ‘লঞ্চঘাটের মেডিসিন ব্যবসায়ী জনির স্ত্রী আমার জীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছে। তার অভিযোগের ভিত্তিতে লঞ্চঘাটের দোকানদাররা আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কেড়ে নিয়ে আমাকে শেষ করে দিয়েছে। ওপরের লোকরা সকালে এক কথা বিকেলে আরেক কথা বলে। রনি মেডিসিন হাউজের রনি বলেছেন জনির স্ত্রী আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছেন। এজন্য আমার দোকান কেড়ে নিয়েছে লঞ্চঘাটের দোকানদাররা। দোকান উচ্ছেদ না করার জন্য আমি তাদের হাত-পা ধরে কান্না করেছি। সচী মেডিকেলের মালিক এই এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলরের হাত-পা ধরেছি অনেক বার। তাকে বলেছি ভাই আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রক্ষা করেন। আমাকে বাঁচান, আমার কি দোষ। কিন্তু আমার কথা শোনেননি কাউন্সিলর।’

‘কেউ আমাকে কিংবা আমার প্রতিষ্ঠান বাঁচানোর চেষ্টা করেনি। জোর করে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান কেড়ে নিয়েছে তারা। তাদের কাছে আমি বার বার লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। যার প্রমাণ আমার ব্যাগে আছে। লঞ্চঘাটের ব্যবসায়ী কায়েস মিয়া, রনি আর জনির স্ত্রী এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিলে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান শেষ করে দিয়েছে। ১ নভেম্বরের মধ্যে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান না ছাড়লে জোর করে দোকানে তালা দেবে বলেছে তারা। আমারে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিয়েছে।’

শিরিনের বাড়ি পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলায়। বরিশাল নগরীর ব্যাপ্টিস্ট মিশন রোডের মো. হুমায়ুনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছিল। তাদের এক ছেলেসন্তান রয়েছে। তবে তাদের সংসার বেশি দিন টেকেনি। পারিবারিক কলহের কারণে তাদের বিচ্ছেদ হয়।

কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ওসি মো. নুরুল ইসলাম বলেন, এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা বলা সম্ভব নয়। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে নিশ্চিত করে বলা যাবে। এ ঘটনায় শিরিনের ভাই ইউসুফ মৃধা মামলা করেছেন। মৃত্যুর কারণ হিসেবে পুলিশ বেশ কয়েকটি বিষয়কে সামনে রেখে প্রকৃত রহস্য উদঘাটনে তদন্ত শুরু করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com