সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:৪০ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
Gtbnews24.com এর হেড অফিস স্থানান্তর করা হয়েছে। বতর্মান ঠিকানাঃ মাঝিড়া,শাজাহানপুর,বগুড়া।

নেত্রকোনায়  প্রধানমন্ত্রী  ঘোষিত  ওএমএস এর চাল বিক্রয় 

নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ

নেত্রকোনা  জেলাসদরসহ ৪টি  পৌসসভায় প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনার ঘোষিত  প্রনোদনার প্যাকেজ এর আওতায়  খাদ্য  অধিদপ্তর  কর্তৃক পরিচালিত  ওএমএস এর চাল বিক্রি করা হচ্ছে । সারাদেশের পৌরসভার  নেত্রকোনায় ও  করোনা কালিন ওএমএস এর চাল আটা ডিলারদের মাধ্যমে বিক্রয় করছে। সারাবছর কিছু  চালু থাকলেও করোনা কালীন  স্পেশাল  প্রনোদনা দিচ্ছেন।
চাল- ৩০ টাকা কেজি /আটা-১৮ কেজি করে পাচ্ছে যা  জন প্রতি ৫ কেজি চাল ৫কেজি আটা নিতে পারবে  । নেত্রকোনায় মোট২০ জন  ডিলার নিয়োগ দিয়েছেন  খাদ্য  অধিদপ্তর। প্রতি ডিলার দৈনিক  বরাদ্দকৃত চাল ১.৫ টন, আটা ১টন। ৫০০ জনের মধ্যে  বিক্রি  করবে। সবার জন্যই উন্মুক্ত যে কেউ  ক্রয় করতে পারে সরকারি  চাল আটা। ২৫জুন থেকে ওএমএস খাদ্য  পণ্য বিক্রি  শুরু হয়। বর্তমানে চাল দিলে ও আটা বিক্রি  বন্ধ আছে।
জেলা খাদ্য কর্মকর্তা জাকারিয়া  মোস্তফা  জানান, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের  কারণে দিন আনে দিন খাওয়া মানুষ  গুলো খাদ্যের  অভাব  অনটনে পড়ে গিয়েছিল , কাজ না থাকায় জীবিকা নির্বাহ  করা  কষ্টকর হয়ে পড়েছিল। দেশের মানুষ  করোনা পরিস্থিতিতে একজন মানুষ ও যেন না খেয়ে থাকে আর সে লক্ষেই প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা  এমন উদ্যোগ  গ্রহন করেছেন।
ডিলারা বলেন, দরিদ্র মানুষের  জন্য  এমন একটা উদ্যোগ  নেওয়ার জন্য  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  কে অনেক  ধন্যবাদ  কারণ করোনা কালীন  সময়ে  ওএমএস এর চাল আটা কম দামে পেয়ে সাধারণ  মানুষ   আজ উপকৃত ।  আমাদের যে বরাদ্দ  দিয়েছে  তা আমরা দায়িত্ব সহকারে তা পালন করছি। স্বল্প  লাভ থাকলেও সাধারণ  মানুষের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি তাতে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ।তারা আরও জানান,নেত্রকোণা জেলার  ৫টি পৌরসভার   বিক্রয় কেন্দ্রগুলোর করোনাকালীন স্বাস্থ্য বিধি মেনে ওএমএস এর কার্যক্রম পরিচালনা করছি।  তবে দূর্গাপুর, মোহনগঞ্জ  পৌর এলাকা  ডিলারা জানান, দূর্গাপুর   ও মোহনগঞ্জ  উপজেলার   চাহিদা বেশি  হওয়ায় আমাদের হিমশিম  খেতে  হয় তাই  খাদ্য অধিদপ্তর   যদি বরাদ্দ  বাড়িয়ে দেয় তাহলে মানুষকে সুন্দর ভাবে দিতে পারবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com