মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
Gtbnews24.com এর হেড অফিস স্থানান্তর করা হয়েছে। বতর্মান ঠিকানাঃ মাঝিড়া,শাজাহানপুর,বগুড়া।
সংবাদ শিরোনামঃ
দিনাজপুরে করোনায় একজনের মৃত্যু পার্বতীপুরে রেলের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান এবং জরিমানা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এম.পি মোকতাদির স্বপরিবারে করোনা আক্রান্ত দিনাজপুরে তাপমাত্রা ১১.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস দিনাজপুরে করোনায় আরও ৩৪ জন আক্রান্ত শ্রীপুরে বিএনপি’নেতাকে গঠনতন্ত্র ছাড়াই বহিষ্কারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন  শ্রীপুরে জমি দখলকে কেন্দ্র করে  পুলিশের ওপর হামলা  গ্রেফতার ২, পৃথক দুটি মামলা শ্রীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধে বিধবা নারীকে গাছে বেঁধে নির্যাতন চলাচলের রাস্তা বন্ধ  বঙ্গবন্ধু জাতীয় আবৃত্তি উৎসব নয়টি সংগঠনের ৫০ আবৃত্তি শিল্পী অংশ নিবে  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৪৫ ভাগ মানুষ টিকা নিয়েছেন

চাঁদপুরে ফি ছাড়াই পরিবর্তিত হবে প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি নিয়ে গ্রাহকেদর দুর্ভোগের যেন শেষ নেই। অনেকেই মিটারের ফ্রী ব্যাটারি পরিবর্তন করতে অসাধু কিছু কর্মচারীদের জন্য হয়রানির শিকার হচ্ছেন। অথচ খুব সহজেই প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি পরিবর্তন করা যায় এবং নতুন করে তা সংযোজন করতে কোন ফি কিংবা অর্থ পরিশোধের প্রয়োজন হয় না বলে জানিয়েছেন চাঁদপুর বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের (বিউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমান।২১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে নতুনবাজারস্থ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ কার্যালয়ে সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানান।
হঠাৎ করে বিদ্যুৎ চলে যায়। গ্রাহক মনে করছেন মিটারের টাকা শেষ হয়ে গেছে। যখন মিটার রানিং হচ্ছে না, তখনই গ্রাহকরা বুজতে পারেন মিটারের ব্যাটারি শেষ হয়ে গেছে। তখন কিছু না বুজেই তাড়াহুড়া করে বিদ্যুৎ অফিসে ফোন করে স্টাফদের আসতে বলেন। তখন টাকার বিনিময়ে ওই গ্রাহকদের ব্যাটারি পরিবর্তন করে দেন তারা। সম্প্রতি সময়ে চাঁদপুর শহরে প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি পরিবর্তন করতে এমন ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে গ্রহকদের। অথচ প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি শেষ হওয়ার সাথে সাথে সরাসরি বিদ্যুৎ অফিসে এসে আবেদন করলেই কোন প্রকার অর্থ ছাড়া নতুন ব্যাটরি পাবেন গ্রাহকরা।
চাঁদপুর শহরের নাজিরপাড়া এলাকার বাসিন্দা ইদ্রিস জানান, প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি শেষ হয়ে গেলে চাঁদপুর বিদ্যুৎ অফিসে ফোন করি। তখন সেখান থেকে লোক এসে নতুন ব্যাটরি লাগানোর কথা বলে। মিটারের ব্যাটারি ও আনুসাঙ্গিক খরচের জন্য আমার কাছ থেকে ১২০০ টাকা নিয়েছে। আগে নিয়ম-কানুন জানালে এমনটা হতো না।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চাঁদপুর বিদ্যুৎ অফিসের স্টাফরা বলেন, গ্রাহক সরাসরি এসে আবেদন করলে কোন টাকা লাগে না। এখান থেকে যদি কোন স্টাফ গ্রাহকদের বাড়ি যায়, তাহলে কিছু খরচ গ্রাহকদের বহন করতে হয়। গ্রাহকের আবেদন করা, মিটার চালু করা পর্যন্ত আমরা দায়িত্ব নিয়ে থাকি। সেই জন্য গ্রাহকদের কাছ থকে কিছু খরচ নেই।
চাঁদপুর বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের (বিউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমান বলেন, প্রিপেইড মিটার ব্যবহারকারী গ্রাহকরা মিটারের ব্যাটারি নিয়ে আমাদের কাছে অভিযোগ করে থাকেন। আমাদের একটাই কথা প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি পরিবর্তনের জন্য কোন প্রকারের ফি কিংবা অর্থ পরিশোধ করতে হয় না। ব্যাটারি পরিবর্তনের প্রয়োজনে গ্রাহকরা বাহিরের কারো শরণাপন্ন হবেন না। সরাসরি অফিসে এসে যোগাযোগ করবেন। এখানে আবেদন করলেই আপনি ফি ছাড়া প্রিপেইড মিটারের ব্যাটারি পাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com