রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।
সংবাদ শিরোনামঃ
গাবতলী, সোন্দাবাড়ী দারুল হাদিস রহমানিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা পরিদর্শন কালে মাদরাসার কৃতপক্ষ ফুলের শুভেচ্ছা জানান (৪২)বগুড়া -৭ আসনের এমপি জনাব মোঃ রেজাউল করিম বাবলু মোহদয় কে।সেই সাথে সোন্দাবাড়ী দারুল হাদিস রহমানিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় করেন ? নামীদামী ব্রান্ডের সাথে পাল্লা দিয়ে নুরানী চিলি সস ও টমেটো কেচাপ এখন ভোক্তাদের প্রথম পছন্দের তালিকায় উঠে এসেছে যাত্রাবাড়িতে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে ও যানজট নিরসনে কাজ করছেন ট্রাফিক পুলিশের টিআই মৃদুল পাল ও মেনন শিবগঞ্জে আশুরা উপলক্ষে শোক মজলিস ও র‍্যালী বাল্যবিয়ের হাত থেকে রেহাই পেল কিশোরী গাছ থেকে কাঁঠাল পাড়াকে কেন্দ্র করে দুই ভাইয়ের পরিবারের মাঝে সংঘর্ষ

চবি ছাত্রীকে হেনস্তা: গ্রেফতার চারজনের দোষ স্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ছাত্রীকে হেনস্তার ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন গ্রেফতার চার আসামি।

শনিবার (২৩ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে প্রেস ব্রিফিংয়ে র‍্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) নুরুল আফসার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতাররা হলেন- চবির ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. আজিম (২৩), হাটহাজারী কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র নুর হোসেন ওরফে শাওন (২২), চবির নৃবিজ্ঞান বিভাগ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. নুরুল আবছার ওরফে বাবু এবং হাটহাজারী কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. মাসুদ রানা ওরফে মাসুদ (২২)। আজিমের বাড়ি নোয়াখালির হাতিয়া উপজেলায়, শাওনের হাটহাজারীর ফতেপুর ইউনিয়নে, আবছারের ফেনীর পশুরামে ও মাসুদের বাড়ি ঝালকাঠি সদর উপজেলায়।

নুরুল আফসার বলেন, ওই ছাত্রী ও তার বন্ধুর কাছ থেকে দুটি মোবাইল সেট ও নগদ ১৩ হাজার ৭০০ টাকা আত্মসাৎ করা হয়। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ছাত্রী বাদী হয়ে গত ২০ জুলাই হাটহাজারী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

তিনি আরও বলেন, শুক্রবার রাতে হাটহাজারী ও রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। তারা ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। গ্রেফতারদের সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

১৭ জুলাই রাতে চবির এক ছাত্রী পাঁচজন দুর্বৃত্তের হাতে শারীরিক হেনস্তার শিকার হন। ওই সময় তার সঙ্গে থাকা বন্ধুকেও মারধর ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেওয়া হয়। পরে এ বিষয়ে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী প্রক্টর বরাবর অভিযোগ দিলে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এছাড়া অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করে থানায় মামলাও করেছেন ওই ছাত্রী। জড়িতদের বিচার দাবিতে উত্তাল হয়ে ওঠে চবি ক্যাম্পাস।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com