মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

শিবগঞ্জ পাগলাপাড় বিলে উজানের পানি আসায় ভেসে গেল কোটি টাকার মাছ

সাজু মিয়া শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জে অতি টানা বৃষ্টির পাশাপাশি এবার উজানের পানি আসায় কোটি টাকার মাছ উজানের পানিতে ভেসে গেল, মৎস্যজীবীর মাথায় হাত, বিলের পার্শ্বে শত মানুষের হা হুতাশ।জানা যায়, শিবগঞ্জ উপজেলার শিবগঞ্জ ইউনিয়নের মিল্কিপুর গ্রামের মসৎস্যজীবী জুয়েল পাগলা পাড় বিলের চাপানো কচুরি পানা সংস্কার করে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ৩/৪টি মসজিদের উন্নয়নের জন্য বিলটিতে বিভিন্ন জাতের মাছ ছেড়ে দেয়। কিন্তু টানা ২/৩ দিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে পানি আসায় ভেসে গেল মাছ।

এলাকাবাসীর সহযোগিতা নিয়ে মৎস্যজীবী জুয়েল মাছ গুলো রক্ষার জন্য বিলের চতুর দিকে জাল ও বাঁশের চটা দিয়েও এক দিনের উজানের পানিতে মাছ গেল ভেসে। বিলের পাশে থাকা মোকলেছার রহমান, মুনছুর রহমান, আব্দুর মোমিন, গৃহবধু রোবাইয়া বেগম, মিন্নি বেওয়া, জুলেখার মত অনেকে বলেন, জুয়েল সরকারি কিছু খাস জমি ও এলাকার কিছু মানুষের ২০ একর জমি পত্তন নিয়ে বিলের কচুরি পানা সংস্কার করে এই বিলে মাছ চাষ করছে। মাছগুলো এবার উঠানোর কথা ছিল। প্রতিটি মাছের ওজন হয়েছিল ৩/৪ কেজি।

উজানের পানি এসে সর্বশান্ত করলো জুয়েল কে। এতো বড় ক্ষতি আমাদের জীবনে দেখিনী। বিষয়টি নিয়ে সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমরা জেনেছি। মাছ রক্ষার্থে মৎস্য জীবীকে অনেক উপদেশ দিয়ে ছিলাম। উপদেশগুলো জুয়েল অক্ষরে অক্ষরে পালন করলেও হঠাৎ উজানের পানিতে ভেসে নিয়ে গেল মাছ। ক্ষতির বিষয়টি আমাদের উর্ধ্বতন কর্মকতাকে অবহিত করবো।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়ের আহম্মেদ সাবু সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, মৎস্য জীবী জুয়েল এর বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে গেল। তার পাশাপাশি এলাকার কৃষকদের যথেষ্ট ক্ষতি গেল। আমি ক্ষতির বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনকে বলবো কি করা যায় এই ক্ষতি গুলোর বিষয়ে। মৎস্যজীবী জুয়েল এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমার সব সর্বনাশ হয়েছে। আমার প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষতি হয়ে গেল। কি করবো এখন বুঝে উঠতে পারছি না। কিভাবে মাছের খাদ্যের ও ঋণের টাকা পরিশোধ করবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com