রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৫৮ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।
সংবাদ শিরোনামঃ
গাবতলী, সোন্দাবাড়ী দারুল হাদিস রহমানিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা পরিদর্শন কালে মাদরাসার কৃতপক্ষ ফুলের শুভেচ্ছা জানান (৪২)বগুড়া -৭ আসনের এমপি জনাব মোঃ রেজাউল করিম বাবলু মোহদয় কে।সেই সাথে সোন্দাবাড়ী দারুল হাদিস রহমানিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় করেন ? নামীদামী ব্রান্ডের সাথে পাল্লা দিয়ে নুরানী চিলি সস ও টমেটো কেচাপ এখন ভোক্তাদের প্রথম পছন্দের তালিকায় উঠে এসেছে যাত্রাবাড়িতে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে ও যানজট নিরসনে কাজ করছেন ট্রাফিক পুলিশের টিআই মৃদুল পাল ও মেনন শিবগঞ্জে আশুরা উপলক্ষে শোক মজলিস ও র‍্যালী বাল্যবিয়ের হাত থেকে রেহাই পেল কিশোরী গাছ থেকে কাঁঠাল পাড়াকে কেন্দ্র করে দুই ভাইয়ের পরিবারের মাঝে সংঘর্ষ

গাইবান্ধায় বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধের ৫২ টি পয়েন্ট ঝুঁকিপূর্ণ আতঙ্কে উক্ত এলাকার মানুষেরা 

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধা জেলার  ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধসহ জেলার অন্যান্য নদীর বাঁধ বালি ফেলে তৈরি করার কারণে তা পানির তোড়ে  দুর্বল হয়ে পড়ায় চলতি বন্যায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে উক্ত এলাকার মানুষেরা। জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা, গাইবান্ধা সদর, ফুলছড়ি উপজেলা ও সাঘাটা উপজেলার বাঁধ বন্যার তোড়ে এবারও ধ্বসে যাওয়ার অবস্থা হলে বালির বস্তা ও মাটি ফেলে কোনরকমে তা রক্ষা করা গেছে। তবে তা কতটুকু টিকবে তা এখন চিন্তার বিষয়।
গাইবান্ধার ব্রহ্মপুত্র, যমুনা, তিস্তা তীরের ৭৮ কিলোমিটার বাঁধসহ ঘাঘট, করতোয়া, নুরুল্যার বিল, আখিরা নদীর ওপর রয়েছে সব মিলিয়ে ২৪০ কিলোমিটার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ। নিয়মিত সংস্কারের অভাবে দীর্ঘদিন আগে তৈরি সুন্দরগঞ্জ, সদর, ফুলছড়ি, সাঘাটা, গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ি ও সাদুল্লাপুর উপজেলা রক্ষা বাঁধগুলো বেহাল। অন্তত ৫২টি পয়েন্টে প্রতিবার জোড়াতালি দিয়ে রক্ষা করার চেষ্টা করা হলেও বন্যা ও নদীভাঙ্গন গ্রাস করে মানুষের সহায় সম্পদ। ফুলছড়ি উপজেলায় প্রায় তিনশ’ কোটি টাকার ব্রহ্মপুত্র ডানতীর রক্ষা প্রকল্পের কাজ শুরু হলেও এখনও অগ্রগতি মাত্র ৫০ভাগ। সময়মত সংস্কার কাজ না হওয়ায় চলতি বন্যাতেও হুমকির মুখে পড়েছে বাঁধ।
কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. লিটন মিয়া বলেন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ধ্বসে গেলে অবর্ণনীয় ক্ষতির মুখোমুখি হবেন লাখ লাখ মানুষ।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com