শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩৩ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

কৃষি অর্থনীতির বহুমাত্রিক কর্মক্ষেত্র

কৃষি এ দেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি। দেশ কৃষিনির্ভর হওয়ায় দারিদ্র্য দূরীকরণ ও গ্রামীণ উন্নয়নে কৃষি অর্থনীতির গুরুত্ব অনেক। আর এ গুরুত্ব থেকেই বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি কৃষি অর্থনীতি পড়ানো হচ্ছে। কৃষি অর্থনীতির রয়েছে বহুমাত্রিক কর্মক্ষেত্র। দিন দিন ক্ষেত্রগুলো আরও বিস্তৃত হচ্ছে।

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে তো বটেই, কৃষি অর্থনীতির গুরুত্ব উপলব্ধি করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়েও এ বিষয়ে পাঠদান করা হচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে প্রতিষ্ঠিত এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি ব্যবসা ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষক এ কে এম গোলাম কাওসার বলেন, কৃষিভিত্তিক অর্থনীতির উন্নয়নে এ দেশে কৃষি অর্থনীতি গ্র্যাজুয়েটদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো গুরুত্ব উপলব্ধি করে কৃষি অর্থনীতিবিষয়ক কোর্স চালু করছে।

কৃষি অর্থনীতি বিষয়ে পড়ে দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হতে পারেন। কৃষি অর্থনীতি গ্র্যাজুয়েটরা সরকারি কর্মকমিশনের আওতাভুক্ত বিসিএসের যেকোনো সাধারণ ক্যাডারে আবেদন করতে পারেন। একই পরীক্ষার মাধ্যমে কিছুদিন আগে টেকনিক্যাল ক্যাডারে কৃষি বিপণন কর্মকর্তা পদ সৃষ্টি হয়েছে। যেকোনো সরকারি ও বেসরকারি ব্যাংকে রয়েছে চাকরির সুযোগ। কৃষিভিত্তিক ব্যাংকগুলোতে প্রাধান্য বেশি দেওয়া হচ্ছে।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ ইক্ষু গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল, বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউটে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দিতে পারেন। আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, আন্তর্জাতিক ফসল গবেষণা ইনস্টিটিউট, আন্তর্জাতিক খাদ্যনীতি গবেষণা ইনস্টিটিউট, আন্তর্জাতিক গম ও ভুট্টা উন্নয়ন কেন্দ্রে কৃষি অর্থনীতি গ্র্যাজুয়েটরা চাকরি করতে পারেন।

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন একাডেমি, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বগুড়ার পল্লী উন্নয়ন একাডেমি, বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন, পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডে এ গ্র্যাজুয়েটরা চাকরি করছেন।

এ ছাড়া রয়েছে কোম্পানি এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক এনজিও (বেসরকারি সংস্থা)। কোলপাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি, ইলেকট্রিসিটি জেনারেশন কোম্পানি, বিভিন্ন সার ও চিনি কারখানা, খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, এশিয়া ফাউন্ডেশন, ড্যানিডা, কেয়ার, ব্র্যাক, ওয়ার্ল্ড ভিশন, আশা, প্রশিকা, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোতে কৃষি অর্থনীতি গ্র্যাজুয়েটদের চাকরির সুবিধা বাড়ছে।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অর্থনীতি ও গ্রামীণ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক পরেশচন্দ্র মোদক বলেন, কৃষি অর্থনীতি গ্র্যাজুয়েটদের কৃষি বিষয়ে ব্যবহারিক জ্ঞান থাকায় চাকরির ক্ষেত্র তাঁরা অনেক ভালো করছেন। দেশে তো বটেই, দেশের বাইরে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে কৃষি অর্থনীতিবিদেরা নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

কোথায় পড়বেন: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com