সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৪:১০ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
Gtbnews24.com এর হেড অফিস স্থানান্তর করা হয়েছে। বতর্মান ঠিকানাঃ মাঝিড়া,শাজাহানপুর,বগুড়া।
সংবাদ শিরোনামঃ
বগুড়ার শেরপুরে বিশালপুর ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত কাহালু সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা থানায় তদবিরে গিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার আসামী গ্রেফতার মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত: পররাষ্ট্র সচিব আয়রন ব্রিজ তো নয় যেন মরণ ফাঁদ উখিয়ায় বিভিন্ন অপরাধে জড়িত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ৬ শিবগঞ্জে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী শাওনের নির্বাচনী উঠান বৈঠক শিবগঞ্জে কৃষকের কলা বাগানের ছড়িতে মেডিসিন ষ্প্রে করে ২শতাধিক কলা নষ্ট করার অভিযোগ শিবগঞ্জ থানা পুলিশের আয়োজনে দূর্গাপূজা উপলক্ষে মত বিনিময় সভা ধামইরহাটে জাহানপুর ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হতে চান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি লুইছার রহমান

“মানবিক গুনাবলীর উজ্জল দৃষ্টান্ত সাবেক এম.পি ডাঃ জিয়াউল হক মোল্লা”

মোঃ সাহিন সরদার কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের উত্তর জনপদের একটি জেলা বগুড়া জেলা। বগুড়া জেলাকে উত্তর অঞ্চলের প্রাণ কেন্দ্র বা প্রবেশদ্বার বলা হয়। রাজনৈতিক সমীকরণে উত্তর বঙ্গের গুরুত্বপূর্ন তাৎপর্য বহন করে। বগুড়া জেলার ১৩টি উপজেলার ও ৭টি সংসদ সদস্যের নির্বাচনী এলাকা নিয়ে গঠিত। তার মধ্য বগুড়া-৩৯ কাহালু নন্দগ্রীম উপজেলা নিয়ে বগুড়া ৪ নির্বাচনী এলাকা। এই এলাকার সাবেক সংসদ সদস্য ডাঃ জিয়াউল হক মোল্লা। তিনি কাহালু উপজেলা দূর্গাপুর ইউনিয়নের দেওগ্রাম নামক স্থানে সমভ্রান্ত একটি মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন করে। তার বাবাও সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন। তার বাবা ১৯৯০ সালে এম.পি পদপ্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হন এবং ১৯৯৪ সালে মৃত্যু বরন করেন। তার বাবা মরহুম আজিজুল হক মোল্লা মৃত্যু বরন করার পর ডাঃ জিয়াউল হক মোল্লা ১৯৯৪ সালে কাহালু-নন্দীগ্রাম থেকে উপ-নির্বাচনে জয়ী হন, এবং সেই থেকে তিনি ২০০৬ সাল পর্যন্ত এম.পি ছিলেন। সেই সময় থেকে আজ পর্যন্ত তিনি তার নির্বাচনী এলাকায় তার সুনাম অক্ষুন্ন রেখেছেন, এবং বিভিন্ন সময়ে কাহালু উপজেলা ও নন্দীগ্রাম এলাকার মানুষ তার সাথে যোগাযোগ করেন। সুখে দুখে গণ মানুষের পাশে তিনি সব সময় রয়ে গেছেন। তিনি বিভিন্ন সময়ে মানুষের চিকিৎসা সেবা দিয়ে এসেছেন। কাহালু-নন্দীগ্রাম এলাকায় ক্যাম্প করেও সেবা প্রদান করেন। তিনি সাবেক এম.পি ও একজন চিকিৎসক। তার প্রমান স্বরূপ তিনি কাহালু পৌর এলাকার ৪নং ওয়ার্ডের সরদারপাড়া গ্রামের তারিকুলের পুত্রের চিকিৎসা সেবা, আসলাম আলী সরদারের বড় বোনের চিকিৎসা সেবা, ২০১৮ সালে ২নং ওয়ার্ড সাগাটিয়া গ্রামের ওয়ারেজ আলী পুত্র হাসানের চিকিৎসা সেবা নিজেই সফর সঙ্গী হয়ে ভরতে ব্যাঙ্গালুরে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। কাহালু সদর ইউনিয়নের জয়তুল গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র বিশিষ্ট মৎস্য ব্যবসায়ী পলাশের চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। এছাড়াও নন্দীগ্রামের বিভিন্ন এলকায় এরকম চিকিৎসা সেবার দৃষ্টান্ত রেখেছেন। চিকিৎসা সেবায় অনেক অবদান তার, করোনা কালীন সময়েও তিনি কাহালু নন্দীগ্রাম সদর হাসপাতালে অক্সিজেন সিলিন্ডার ও পিপিআই মাষ্ক বিতরণ করেন। তিনি গণমানুষের নেতা, তিনি মানবিক গুনাবলীর উজ্জল দৃষ্টান্ত। কাহালু নন্দীগ্রাম এলাকার মানুষ আজও তাকে শ্রদ্ধাভরে স্বরণ করে। তাকে যদি এই এলাকায় আবারও দলীয় পদে এম.পি নমিনেশন দেওয়া হয়, তাহলে তিনি দুঃখী মানুষের কাজ করবেন, এই প্রত্যাশা কাহালু নন্দীগ্রাম এলকার সর্ব সাধারণ মানুষের।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com