সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৩৫ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
Gtbnews24.com এর হেড অফিস স্থানান্তর করা হয়েছে। বতর্মান ঠিকানাঃ মাঝিড়া,শাজাহানপুর,বগুড়া।

সমুদ্রে নিম্মচাপ ও অতি জোয়ারের পানিতে পিরোজপুরের অর্ধশত গ্রাম প্লাবিত

পিরোজপুর জেলা সংবাদদাতা
সমুদ্রে নিম্মচাপ ও অতি জোয়ারের পাানিতে এবং ভাঙ্গা বেরীবাঁধের বিভিন্ন স্থান থেকে পানি প্রবেশ করে পিরোজপুরের ৪ টি উপজেলার অর্ধশত গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ফলে সবচেয়ে বেশী বিপাকে পড়েছে এসব এলাকার খেটে খাওয়া সাধারন মানুষ। অতি জোয়ারের চাপে লবনাক্ত পানি ও কচুরীপনা ঢুকে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে ফসলি জমি। অন্যদিকে জোয়ারের পানি এসব এলাকায় ঢুকে তলিয়ে গেছে রাস্তা-ঘাট, বাড়ির আঙ্গিনা। এমন কি রান্নার চুলায় পানি উঠে যাওয়াতে মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ।

জেলার ভান্ডারিয়া, মঠবাড়িয়া, ইন্দুরকানী ও সদরের বেশকিছু এলাকার বেরিবাধ সিডরের সময় ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে তা এখনো মেরামত না করায় সামান্য জোয়ারের পানিতে এসব এলাকার শত শত হেক্টর ফসলি জমি তলিয়ে যায়। কয়েক কিলোমিটার বেরীবাঁধের অভাবে সদরের শারিকতলা ইউনিয়নের কয়েক হাজার পরিবার মানবেতর জীবন যাপন করছে।

ক্ষতিগ্রস্থরা জানিয়েছেন, পানি উঠে আমাদের খুব খারাপ অবস্থা। অধিকাংশ জায়গায় বেরিবাধ নাই। বেরিবাধ না থাকার কারনে পানির খুব চাপ। বাড়ি ঘরে পানি উঠে গেছে। পানি বাড়ার কারনে চুলাও ডুবে গেছে। রান্না বন্ধ, কিভাবে খাবো জানিনা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বেড়িবাধ না থাকার কারনে পানির চাপে সব ভেসে যায়।

জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেয়া তথ্য মতে পিরোজপুরের ৭টি উপজেলায় ২৯২ কিলোমিটার বেড়িবাধ রয়েছে। সমুদ্রের নিম্মচাপ ও অতি জোয়ারের পাানিতে পিরোজপুরের নদ-নদীর পানির উচ্চতা স্বাভাবিকের চেয়ে দুই থেকে তিন ফুট বেড়েছে।

পিরোজপুর সদর উপজেলার শারিকতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আজমীর হোসেন জানান, কচা নদীর তীরে পিরোজপুর সদর উপজেলার ৬নং শারিকতলা ডুমরিতলা ইউনিয়ন পরিষদ। ১০ কিলোমিটার বেরিবাধের ৬ কিলোমিটার নাই। এই বেরিবাধের অভাবে মানুষ, ঘরবাড়ি ও ফসলি জমি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। একটু পানি বাড়লেই মানুষের ঘরে পানি উঠে। আমরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাথে কথা বলেছি বাধের ব্যাপারে। কিন্তু কবে যে বাধ নির্মাণ হবে তারা জানেনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে এ বেরিবাধ নির্মানে বিকল্প নাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com