সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
Gtbnews24.com এর হেড অফিস স্থানান্তর করা হয়েছে। বতর্মান ঠিকানাঃ মাঝিড়া,শাজাহানপুর,বগুড়া।
সংবাদ শিরোনামঃ
বগুড়ার শেরপুরে বিশালপুর ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত কাহালু সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা থানায় তদবিরে গিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার আসামী গ্রেফতার মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত: পররাষ্ট্র সচিব আয়রন ব্রিজ তো নয় যেন মরণ ফাঁদ উখিয়ায় বিভিন্ন অপরাধে জড়িত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রেফতার ৬ শিবগঞ্জে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী শাওনের নির্বাচনী উঠান বৈঠক শিবগঞ্জে কৃষকের কলা বাগানের ছড়িতে মেডিসিন ষ্প্রে করে ২শতাধিক কলা নষ্ট করার অভিযোগ শিবগঞ্জ থানা পুলিশের আয়োজনে দূর্গাপূজা উপলক্ষে মত বিনিময় সভা ধামইরহাটে জাহানপুর ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হতে চান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি লুইছার রহমান

প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে আইআইইউসি কর্মচারীর আদালতে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক:  মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলাম চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইআইইউসি) বাসচালকের হেলপার হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি চট্টগ্রাম জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এ প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে বাসের চালক হিসেবে উল্লেখ করে মামলা করেছেন।

মামলায় আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়্যারমান ও সংসদ সদস্য প্রফেসর ড.আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী ত্রাণ বিতরণ করে এলাকায় সুনাম করায় সহ্য করতে না পেরে গত ২০ আগস্ট লোহাগাড়া থানার পুটিবিলা ইউনিয়নের সাতগড়িয়ার পাড়ায় লাঠি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারধরের অভিযোগ আনেন। ত্রাণের জন্য কোনো ধরনের ঘটনা হয়নি বলে জানিয়েছেন পুটিবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়্যারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ।

মামলায় অভিযোগ করেন, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়্যারমান ও সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীর ত্রাণ বিতরণ নিয়ে এলাকায় সুনাম করেন। সুনাম সহ্য করতে না পেরে লোহাগাড়া থানার পুটিবিলা ইউনিয়নের সাতগড়িয়ার পাড়ার ছাবের আহমদের ছেলে মো. জুবাইর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মো. রিয়াজ উদ্দীন ও কফিল উদ্দীন ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় গত ২০ আগস্ট দুপুরে মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলামকে এলোপাতাড়ি লাথি, কিল, ঘুষি ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জখম করা হয়।

মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলামের গর্ভবতী স্ত্রী’কে এলোপাতাড়ি মারধর করারও অভিযোগ করা হয়। মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলাম ও স্ত্রী’র জখমের চিকিৎসা শেষে থানায় অভিযোগ করলেও আজ ও কাল বলে কোনো রূপ পদক্ষেপ না নেওয়ার কিছুটা বিলম্বে গত ৩১ আগস্ট আদালতে মামলা করেন। মামলা নম্বর সি.আর ২৫৪/২০২১ লোহাগাড়া। মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।

সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী ত্রাণ বিতরণের সুনাম সহ্য করতে না পেরে মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলামের মারধরের কোনো ধরনের ঘটনা ঘটেনি জানিয়ে পুটিবিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়্যারম্যান মো. ইউনুছ  বলেন, আমাদের ইউনিয়নে প্রতিবার সুন্দর করে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। গত পাঁচ বছরে ত্রাণ নিয়ে আমাদের ইউনিয়নে কোনো ধরনের ঘটনা ঘটেনি ও কোনো ধরনের সমস্যা হয়নি। সুনামের সঙ্গে প্রতিবার ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

ত্রাণ নিয়ে কোনো ধরনের ঘটনা হয়নি জানিয়ে পুটিবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন মানিক  বলেন, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ। কোরবানের ঈদের আগের দিন হাতাহাতি হয়েছিল, কোনো উল্লেখযোগ্য মারামারিও না। এমপি স্যারের নলেজে দিয়েছিল, এমপি স্যার আমাকে জানাতে বলেছিলেন। এখানে থানা পুলিশ এসেছিল। ত্রাণ নিয়ে কোনো ঘটনা না। এটা হচ্ছে জমিজমা সংক্রান্ত ঘটনা। এখানে কোনো দলীয় ঘটনা না। সমাধান করে দেওয়ার জন্য মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলামকে বৈঠকে বসতে বলেছিলাম কিন্তু তিনি বসেননি।

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন বিভাগের সহকারী পরিচালক অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল আরিফ  বলেন, মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলাম আমাদের পরিবহন বিভাগে হেলপার হিসেবে কর্মরত আছেন। আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়্যারমান ও সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী স্যারের ত্রাণ বিতরণের সুনাম সহ্য করতে না পেরে মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলামকে মারধরের কথা আপনার কাছ থেকে প্রথম শুনেছি। আমাদের জানানো হয়নি।

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলপার হিসেবে কর্মরত আছেন জানিয়ে মামলার বাদী মোহাম্মদ সমসাদুল ইসলাম  বলেন, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কর্মচারীদের সংসদ সদস্য প্রফেসর ড.আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী স্যার ত্রাণ দিয়েছিলেন। সেটার সুনাম করায় আমাকে ও স্ত্রী’কে মারধর করা হয়েছে। বর্তমানে আমার স্ত্রী চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সংসদ সদস্য প্রফেসর ড. আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী ত্রাণ বিতরণ নিয়ে সুনাম সহ্য করতে না পেরে কোনো ঘটনা ঘটেনি জানিয়ে লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাকির হোসাইন মাহমুদ  বলেন, থানায় কোনো ধরনের অভিযোগ করেনি।

প্রতারণার আশ্রয়ে নিয়ে আদালতে মামলার বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম জিয়াউদ্দিন  বলেন, আদালতে যে কেউ চাইলে মামলা করতে পারেন। প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে মামলা করলে তার বিরুদ্ধে চাইলে থানায় ও আদালতে মামলা করতে পারেন। মামলায় সাক্ষী, অভিযোগপত্র দাখিল সবকিছু শেষে আদালত রায়ের পরে মিথ্যা প্রমাণিত হলে আদালত চাইলে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com