বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

ধুনটে যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের ২৫০ মটিার নদীর্গভে বিলিন

রাসলে মাহমুদ,ধনুট প্রতিনিধি,বগুড়া: বগুড়ার ধুনটের  ভান্ডারবাড়ি গ্রামে যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষন প্রকল্পরে ২৫০ মটিার এলাকা নদী র্গভে বলিীন হয়ে গেছে । প্রকল্পরে অবশষ্টি ৪৫০ মটিার এলাকাও ভাঙ্গন ঝুঁকতিে রয়েছে বলে যমুনা নদীর তীরর্বতী এলাকা ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভাঙ্গনের শঙ্কায় স্থানীয় লোকজনরে মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
বগুড়া পানি উন্নয়ন র্বোড (পাউবো) সূত্রে জানা গেছে  যমুনা নদীর তীরর্বতী এলাকার ভাঙ্গন রোধে পানি উন্নয়ন র্বোড তীর সংরক্ষণ প্রকল্পরে কাজ করছে। ২০০৭-২০০৮ র্অথ বছরে ভান্ডারবাড়ী থকেে কৈগাড়ী গ্রাম র্পযন্ত ৭০০ মটিার প্রকল্পরে কাজ করা হয়। প্রায় ২২ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পরে কাজটি সম্পন্ন করা হয়ছে।ে কন্তিু প্রকল্পরে কাজ শষে হওয়ার আগে থকেইে নদী ভাঙ্গনরে শকিার হয় প্রকল্প এলাকা। গত কয়কে বছরে দফায় দফায় ভাঙ্গনে প্রকল্পটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ছে।

প্রতি বছরই নদীতে পানি বৃদ্ধি বা কমে যাওয়ার সময় পানরি প্রবল ¯্রাতে তীর সংরক্ষণ প্রকল্পে আঘাত কর।ে এতে প্রকল্পে ব্যবহৃত সসিি ব্লক ও জওি ব্যাগ ধসে যায়। ধস ঠকোতে পাউবো জরুরী ভত্তিতিে বালুর বস্তা ফলেছে। চলতি বছররে র্বষা মৌসুমে দু’দফা প্রকল্প এলাকা নদীতে ধসে যায়। র্বতমানে ডান তীর সংরক্ষণ এলাকার ৩০টি স্থানে ধসে গছে। এতে ক্ষতগ্রিস্ত হয়ছেে প্রকল্প এলাকার প্রায় ২৫০ মটিার। অবশষ্টি ৪৫০ মটিার এলাকাও রয়ছেে ধসে যাওয়ার ঝুঁকতি।

এদকিে প্রকল্প এলাকার ধসে যাওয়া স্থানগুলো স্থায়ী ভাবে মরোমত করা হয়ন।ি তীর সংরক্ষণ প্রকল্প এলাকা থকেে বন্যা নয়িন্ত্রণ বাঁধ সন্নকিট।ে প্রকল্প এলাকায় নদী ভাঙ্গনরে ফলে আবাদী জমওি নদীতে বলিীন হচ্ছ।ে স্থানীয় লোকজন বাঁধ ও তীরর্বতী এলাকার আবাদী জমি ভাঙ্গনরে আতঙ্কে রয়ছে।
ভান্ডারবাড়ী ইউনয়িন পরষিদরে চয়োরম্যান আতকিুল করমি আপলে জানান, যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্পরে কাজ হওয়ায় ৭০০ মটিার এলাকা রক্ষা পায়। কন্তিু প্রকল্প এলাকার বভিন্নি স্থানে ধসে গছেে এবং অবশষ্টি অংশ ঝুঁকপর্িূণ হয়ে উঠছে।ে র্বতমানে ভাটতিে সরকার কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে তীর সংরক্ষণ প্রকল্পরে কাজ করছে। কিন্তু উজানে থাকা ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্প রক্ষা করা সম্ভব না হলে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ, আবাদী জমি এবং ভাটতিে থাকা তীর সংরক্ষণ প্রকল্প এলাকাও রক্ষা করা সম্ভব হবে না।
বগুড়া পানি উন্নয়ন র্বোডরে উপ সহকারী প্রকৌশলী হারুনর রশীদ বলনে, ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্প এলাকা শুরু থকেইে ভাঙ্গনরে শকিার হয়ছে। প্রকল্প এলাকায় ধস দেখা  দিলে পানি উন্নয়ন র্বোড জরুরী ভিত্তিতে বালু র্ভতি  জিও  ব্যাগ ফেলে  ধস ঠেকানোর চেষ্টা করে । র্বতমানে পুরো প্রকল্প এলাকাই ঝুকিপুর্ন রয়েছে । ডানতীর  সংরক্ষণ প্রকল্পের  ৭০০ মিটার  এলাকা নতুন করে কাজ করা প্রয়োজন। এজন্য র্উদ্ধতন র্কতৃপক্ষরে নিকট র্অথ বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com