শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

টাকা দিতে না পারায় মেলেনি বয়স্ক ভাতা

জিটিবি নিউজঃ ফুলমন বেওয়া। বয়স ৭৫। স্বামী হারা এই বৃদ্ধা দুই মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে অতিকষ্টে দিন যাপন করছেন। অথচ তার ভাগ্যে এখনো মেলেনি বয়স্ক ভাতা।

নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার বালুভরা ইউপির দোনইল গ্রামের মৃত তইম উদ্দীনের স্ত্রী এই বৃদ্ধা।ফুলমন খাতুন কেঁদে কেঁদে বলেন, ১৯৭২ সালে আমার স্বামী মারা যায়। বর্তমানে বয়সের ভারে লাঠির উপর ভর করে তার চলাফেরা। ছেলের সাংসারিক অবস্থা ভালো না হওয়ায় নাতির সংসারে দু’মুঠো খেয়ে না খেয়ে বেঁচে আছে ফুলমন বেওয়া।

তার নাতি এরফান আলী বলেন, একাধীকবার আমরা মহিলা মেম্বার নার্গিস এর কাছে ধর্ণা দিয়েও কোন লাভ হয়নি। কারণ ভাতা নিতে হলে ৫ হাজার টাকা দাবী করে মহিলা মেম্বারের স্বামী তৈয়বুর রহমান। টাকা দিতে পারিনি তাই ভাতাও হয়নি।

এ ব্যাপারে দোনইল গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট মো. আব্দুল হাই বলেন, ফুলমনের বয়স্ক ভাতার জন্য মেম্বারদেরকে বলে কাজ না হলে ফুলমনের কষ্ট দেখে তাকে সঙ্গে নিয়ে উপজেলা সমাজসেবা অফিসে যোগাযোগ করি। সমাজসেবা অফিসার এলাকার ইউপি সদস্য আব্দুস সালামের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলে।

ফুলমনের নাতি এরফান বলেন, সালাম মেম্বারের সঙ্গে দেখা করলে তিনি বলেন অপেক্ষা করেন এবার বরাদ্দ আসলে ভাতা করে দেওয়া হবে। কিন্তু কয়েক বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো ভাতা জোটেনি ফুলমনের কপালে।বালুভরা ইউপির মহিলা মেম্বার নার্গিস বেগম বলেন, চেয়ারম্যান শেখ আয়েন উদ্দীন আমাকে পরিষদ থেকে ভাতার কোন কার্ড বরাদ্দ দেয় না। আমি কোথায় থেকে ফুলমনের কার্ড করে দিব?

বালুভরা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আয়েন উদ্দীন বলেন, এখন উপজেলা সমাজসেবা অফিস থেকে ভাতা করে দিচ্ছে এবং তাদের পাশ বইগুলো ইউপি সদস্যদের হাতে দেওয়া হলে এই সুযোগে তারা বই আটকে রেখে টাকা আদায় করে।

উপজেলা সমাজসেসবা অফিসার তারিকুল ইসলাম বলেন, ইতিপুর্বে নিয়মের বাহিরে যাদের নামে ভাতা হয়েছে তাদেরকে বাতিল করা হচ্ছে। নতুন বরাদ্দ এলেই পর্যায়ক্রমে যারা ভাতা পাওয়ার যোগ্য তাদেরকে দেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com