রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:২২ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

ব্রিজের বাণী আর কতো নির্যাতন সইবো তোমাদের!

মো.সুজন মোল্লা,বানারীপাড়া বরিশালঃ বয়সের ভারে আজ তার এমনটাই অবস্থা হয়েছে যে, তাকে দেখলে মানুষ আতকে ওঠে। তাকে বলা হয় সে নাকি মানুষের জন্য মরণ ফাঁদ। তার দোষ কোথায়,যৌবনে তার বুকের ওপরে ইট-সিমেন্টের তৈরি সাড়ি-সাড়ি পাটাতন দিয়ে সাজানো সেই দৃশ্য আজ কেবলই স্মৃতি। তারপরের কথা ইট-সিমেন্টের সেই পাটাতন খসে গিয়ে যখন সে মানুষের চোখের সুল হলো।

তখন তার বুকের ওপরে পুনরায় চাপানো হলো কাঠের পাটাতন। এভাবে বহুদিন চলার পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছ থেকে পায় আবারও সাজ-সজ্জার আশ্বাস। তবে সে আশ্বাস দীর্ঘ বছরেও পূর্ণ না হওয়ায় সোমবার  (১০আগষ্ট) বুকের সব জ্বালা মিটিয়ে সে ঝাঁপ দেয় পানিতে। বর্তমানে সে প্রায় মৃত্যু অবস্থায় সেই পানির মধ্যেই রয়েছে এক বুক জ্বালা বুকে নিয়ে।

উপরোক্ত কথা গুলি কোন গল্প বা উপনাস্যের নায়ক বা নায়িকাদের নিয়ে রচিত হয়নি। বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার উদয়কাঠি ইউনিয়নের শের-ই বাংলা বাজার সংলগ্ন একটি বেহাল দশার ব্রিজ’র ভাবধারা তুলে ধরা হয়েছে মাত্র। স্থানীয়রা জানান,শের-ই বাংলা বাজারের দক্ষিণ পাশের লঞ্চঘাটে যেতে ওই ব্রিজটি দিয়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ চলাচল করে।

বাজার সংলগ্ন ব্রিজের মাঝের বেশিরভাগ অংশ ভেঙ্গে পড়ায় জনসাধারণকে চলাচল করতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এখন। তারা আরও জানান, এ অঞ্চলের বেশিরভাগ কলেজে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা স্বরূপকাঠী সরকারি কলেজ,ফজিলা রহমান মহিলা কলেজ ও শহিদ স্মৃতি ডিগ্রি কলেজে অধ্যায়নরত। আবার এখানকার বেশিরভাগ পরিবার তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করতে এবং যেকোন পর্বনে মার্কেট করতে

স্বরূপকাঠী,মিয়ারহাট ও ইন্দেরহাট বাজারে যাতায়াত করে থাকেন। লঞ্চেচড়ে ওইসব স্থানে যেতে তাদেরকে এই ব্রিজটির ওপর দিয়েই ঘাটে যেতে হয়। বর্তমানে ব্রিজটির অবস্থা এমন নাজুক হয়ে পড়েছে তার ওপর দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন (ভারপ্রাপ্ত) জানান,খুব শীঘ্রই ব্রিজটি জনসাধারণের জন্য চলাচলের উপযোগী করে তোলা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com