বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১০:০৭ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

ধামইরহাটে ফনেসডিলি ও মদ আটক করছেে বজিবি

ধামইরহাট (নওগাঁ)প্রতনিধি: নওগাঁর ধামইরহাট সীমান্ত এলাকা থকেে বপিুল পরমিাণে মাদকদ্রব্য আটক করছেে র্বডার র্গাড বাংলাদশে (বজিবি) সদস্যরা। উপজলোর চারটি স্থানে পৃথক অভযিান চালয়িে ২৪১ বোতল ফনেসডিলি, ১৫০ টি নশোজাতীয় ইনজকেশন ও ১৯ বোতল ভারতীয় মদ আটক কর।তবে এসব কাজে জড়তি থাকার অভযিোগে কাউকে আটক করতে পারনেি বজিবি।

আটককৃত মাদকদ্রব্যরে আনুমানকি মূল্য ১ লাখ ৬২ হাজার টাকা।১৪ বজিবিি পত্নীতলা ব্যাটালয়িনরে অধনিায়ক লঃ র্কণলে এস এম নাদমি আরফেনি সুমন, পএিসস, জি বলনে, গত সোমবার রাতে উপজলোর কড়য়িা বওিপরি টহল কমান্ডার সুবদোর নজরুল ইসলামরে নতেৃত্বে বজিবিি সদস্যরা স্থানীয় লকমা স্কুল মাঠে অভযিান চালায়। অভযিানে ১৮৭ বোতল ভারতীয় ফনেসডিলি আটক কর।

এছাড়া একই রাতে চকলিাম বওিপরি সদস্যরা সীমান্তবতী চকশব্দল গ্রামে অভযিান চালয়িে ১৫০টি নশোজাতীয় ইনজকেশনে এবং মঙ্গলবার ভোর রাতে কালুপাড়া বওিপরি সদস্যরা আলতাদঘিী শালবাগান এলাকা থকেে ২৯ বোতল ভারতীয় ম্যাগডুয়লে মদ আটক কর। অপর অভযিানে পাগলদওেয়ান বওিপরি সদস্যরা রুপনারায়পুর গ্রামে অভযিান চালয়িে ৫৪ বোতল ফনেসডিলি আটক কর। তবে এসব অভযিানে কোন চোরাকারবারীকে আটক করতে পারনেি বজিবি। আটককৃত মাদকদ্রব্যরে সজিার মূল্য ১ লাখ ৬২ হাজার ৪শত টাকা।

 

 

ধামইরহাটে অসহায় পরিবারের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর ধামইরহাটের অসহায় বিধবা বৃদ্ধা রাহেলা খাতুন (৬০) মাথা গোঁজার ঠাঁই হিসেবে ঢেউটিন পেয়ে মহাখুশি। দির্ঘদিন ধরে শয়ন ঘরের খড়ের ছাউনি ও বাড়ীর প্রাচীর ছ্উানি পঁচে গেলেও অর্থের অভাবে মেরামত করতে পারেননি । সন্তান থাকলেও মায়ের ঘর মেরামতের জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি। অবশেষে ধামইরহাট ইউপি চেয়ারম্যান মো.কামরুজ্জামান সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় বৃদ্ধার মুখে হাসি ফুটল।

জানা গেছে,উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নের অন্তর্গত জগদল গ্রামের মৃত মনির উদ্দিনের স্ত্রী বিধবা রাহেলা খাতুনের (৬০) শয়ন ঘর ও সীমানা প্রাচীর খড়ের ছাউনি পঁচে নষ্ট হয়ে যায়। দির্ঘদিন ধরে অভাবের তাড়নায় ঢেউটিন কিনতে পারেনি ওই বিধবা। অথচ তার চার পুত্র সন্তান থাকলেও কেউ তার খোঁজ নেয়নি। বিষয়টি জানতে পেয়ে ধামইরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.কামরুজ্জামান তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মঙ্গলবার দুপুরে ধামইরহাট বাজারে ওই বিধবার হাতে এক ব্যান্ডিল ঢেউটিন তুলে দেন। অসহায় বিধবা রাহেলা খাতুন বলেন, রোদ,বৃষ্টি ও ঝড়ের মধ্যে ওই ঘরে থাকতে হয়েছে। বৃষ্টির পানিতে ঘর এলাকার হয়ে যায়। কিন্ত কেউ আমার খোঁজ রাখেনি। অবশেষে চেয়ারম্যান মো.কামরুজ্জামান আমার খোঁজ নিয়েছেন এবং ঢেউটিনের ব্যবস্থা করার আমি মহাখুশি

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com