সোমবার, ০১ Jun ২০২০, ১২:১৪ অপরাহ্ন

নোটিশঃ
দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় জিটিবি নিউজ এর সাংবাদিক  নিয়োগসহ পরিচয় পত্র নবায়ণ চলছে।

ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়ালো

জিটিবি নিউজঃ ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে। আর মারা গেছে ৩ হাজার ১৬৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৯৭০ জন, সব সব মিলিয়ে সংখ্যাটি দাঁড়িয়েছে মোট ১ লাখ ১ হাজার ১৩৯ জন। কোভিড-১৯ এর কারণে গত এক দিনে মারা গেছেন ১৩৪ জন।

দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য অনুসারে, এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৩৯ হাজারের বেশি করোনা রোগী।

ভারতের সর্বাধিক করোনা আক্রান্ত রাজ্য মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২ হাজার ৩৩ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে সে রাজ্যে ৩৫ হাজারেরও বেশি মানুষ কোভিড-১৯ এর কবলে পড়েছেন।

দেশটির রাজধানী দিল্লিতেও বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। সেখানে ওই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার পেরিয়ে গেছে। নতুন করে সেখানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন আরো ২০০ জনের বেশি মানুষ।

এদিকে, এই মহামারি মোকাবিলায় ২৫ মার্চ থেকে ভারতে লকডাউন জারি করা হয়, বর্তমানে তার চতুর্থ ধাপ চলছে। তবে এ পর্যায়ে কিছু বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে। সংক্রমণ কম আছে এমন এলাকায় বাস ও অটোসহ বিভিন্ন গণপরিবহন চলার অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে সবই করতে হবে সামাজিক দূরত্ব রাখার নির্দিষ্ট নিয়ম মেনেই। ফলে খুবই অল্পসংখ্যক যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বাস।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় সোমবার দাবি করেছে, বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় করোনা মোকাবিলায় তাও ভালো জায়গায় রয়েছে ভারত। কেননা আন্তর্জাতিক হিসাবে যেখানে প্রতি এক লাখ লোকে গড়ে ৬০ জন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছে, সেখানে ভারতে ৭.১ জন আক্রান্ত ওই মারণ রোগে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এ পর্যন্ত করোনা রোধে যেসব আক্রমণাত্মক এবং প্রাথমিক পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তাতে ভালো ফল মিলেছে।’

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৭৩তম বিশ্ব স্বাস্থ্য সমাবেশে যোগ দিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন জানিয়েছেন, মহামারিটির মোকাবিলায় ভারত ঠিক সময়মতো প্রয়োজনীয় সমস্ত পদক্ষেপ নিয়েছে। ‘এই রোগের মোকাবিলায় সর্বজনীন বৈশ্বিক সহযোগিতা প্রয়োজন। এই পরিস্থিতি থেকে সকলকে ঘুরে দাঁড়াতেই হবে’, বলেন তিনি।

এদিকে, যেসব অভিবাসী শ্রমিক ভিনরাজ্য থেকে বাড়িতে পৌঁছে গেছেন তাদের ৭ দিনের মধ্যে করোনা টেস্ট করা দরকার, জানিয়েছে সরকার। করোনা সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নোডাল সংস্থা – ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিকেল রিসার্চও জানিয়েছে, যাদের শরীরে ওই রোগের লক্ষণ দেখা দেয়ায় করোনা টেস্ট করা হয়েছে কিন্তু এখনো সেই পরীক্ষার ফলাফল আসেনি, তাদেরও অবিলম্বে কিছু চিকিৎসা সহায়তা দেয়া উচিত।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com