সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন

আগামী ৩০ এপ্রিল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশ

জিটিবি নিউজ ডেস্কঃ আগামী ৩০ এপ্রিল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশ করবে শ্রমিক-কর্মচারী পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদ এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সমন্বয় পরিষদ।
ওই দিন বেলা ৩টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য মহাসমাবেশে শ্রমিক-কর্মচারী পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম, ছাত্র-শিক্ষক, বুদ্ধিজীবীসহ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সব শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেবেন।
শ্রমিক-কর্মচারী পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক ও নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান জাতীয় প্রেস কাবের সামনে গতকাল এক গণমিছিল-পূর্ব সমাবেশে এ ঘোষণা দেন।
মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক আশিবুর রহমান খানের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট কলামিস্ট আবেদ খান, মুক্তিযোদ্ধা ইসমত কাদির গামা, ওসমান আলী, নাট্য ব্যক্তিত্ব রোকেয়া প্রাচী ও শ্রমিক নেতা মোখলেসুর রহমান।
সমাবেশে শাজাহান খান সমন্বয় পরিষদের ছয়-দফা দাবি ও কর্মসূচি ঘোষণা করেন। দাবিগুলো হলোÑ কোটা সংস্কারের নামে হত্যার গুজব ছড়িয়ে অরাজকতা সৃষ্টিকারীদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা, জামায়াত-শিবির, যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতাবিরোধী ব্যক্তি ও তাদের সন্তানদের সরকারি চাকরিতে নিয়োগ বন্ধ করা, সরকারি চাকরিতে বহাল থাকা জামায়াত-শিবির ও স্বাধীনতাবিরোধীদের চিহ্নিত করে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা, যুদ্ধাপরাধীদের সব স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা, ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে যারা পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করেছে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করাসহ ‘হলোকাষ্ট বা জেনোসাইড ডিনায়েল ল’ এর আদলে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান ক্ষুণœকারী এবং মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে কটাক্ষকারীদের বিরুদ্ধে আইন প্রণয়ন করে বিচারের ব্যবস্থা করা।
ছয় দফা দাবির ভিত্তিতে সমাবেশে ঘোষিত কর্মসূচিগুলো হলোÑ ১৮ এপ্রিল সব জেলা-উপজেলাপর্যায়ে স্মারকলিপি পেশ, ২০ এপ্রিল থেকে ৩১ মে বিভিন্ন জেলায় গণসংযোগ, ২২ এপ্রিল সকাল ১০টায় সব মহানগর, জেলা ও উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডারদের ঢাকায় প্রতিনিধি সভা, ৩০ এপ্রিল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মহাসমাবেশ এবং ৫ মে ঢাকায় জাতীয় কনভেনশন অনুষ্ঠান।
সমাবেশে মন্ত্রী বলেন, আদর্শহীন মেধা ও রাজনীতি সঠিকভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করতে পারে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় দক্ষ। মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শের ভিত্তিতে দেশ পরিচালিত হচ্ছে বলে দেশের উন্নয়ন হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © gtbnews24.com
Web Site Designed, Developed & Hosted By ALL IT BD 01722461335